মাছ ধরার ট্রলারে মিললো সাড়ে চার লাখ ইয়াবা, আটক ৫

FB_IMG_1632460514312.jpg

দিসিএম

মহেশখালী চ্যানেলের গভীর সাগরে চার লাখ ৩০ হাজার ইয়াবাসহ পাঁচজন পাচারকারিকে আটক করেছে র‍্যাব।

তারা হলেন- চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলার গোবিন্দকিল এলাকার মৃত রফিক আহমেদের ছেলে রশিদ উল্লাহ (৪২), কর্ণফুলি থানার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের লাইক্ষ্যার চর এলাকার মৃত কালা মিয়ার ছেলে আমানত করিম (৩৮), কক্সবাজার জেলার ঈদগাঁও উপজেলার পূর্ব বোয়ালখালী এলাকার মৃত ছালেহ আহমেদের ছেলে নাছির উদ্দিন (৩৬) ও ভিলিজার পাড়ার জহির আলমের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (২০) এবং টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপ উত্তরপাড়ার মৃত মুসলিম মিয়ার ছেলে মো. ছৈয়দুর রহমান।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে অভিযান চালানো হয়।

এসময় মাদক পরিবহন কাজে ব্যবহৃত ট্রলারটিও জব্দ করা হয়েছে।

র‍্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী এ সংবাদ জানিয়েছেন।

তিনি জানান, কতিপয় মাদক কারবারী কক্সবাজারের গভীর সমুদ্র এলাকায় কক্সবাজার-মহেশখালী চ্যানেল দিয়ে একটি মাছ ধরার ট্রলারের সাহায্যে ইয়াবার একটি বড় চালান পাচার করছে, এমন সংবাদ পায় র‍্যাব। পরে তাদের একটি চৌকস আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে মাছ ধরার ট্রলার আটক করে। সেখান থেকে ৫ জনকে আটক করা হয়। তারা সবাই মাদক কারবারি।

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, তল্লাশী চালিয়ে ট্রলারটিতে বিশেষ কৌশলে পলিথিনের বস্তাভর্তি লুকিয়ে রাখা অবস্থায় বেশ কয়েকটি প্যাকেট পাওয়া যায়। প্যাকেটগুলো খুলে পাওয়া যায় ৪ লাখ ৩০ হাজার ইয়াবা।

ইয়াবার বিষয়ে জানতে চাইলে আটককৃতরা জানা, স্থলপথ অনিরাপদ থাকায় তারা সমুদ্রপথে ইয়াবার চালানটি কক্সবাজার থেকে দেশের অন্যত্র পাচার করছিল এবং দীর্ঘদিন যাবৎ তারা এ ব্যবসার সাথে জড়িত।

আটকদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন