বিদ্যুৎকেন্দ্রের সরঞ্জামসহ প্রথম জাহাজ মাতারবাড়ী জেটিতে পৌঁছবে মঙ্গলবার

matar-1.jpg

দিসিএম  ডেস্ক:
প্রকল্পটি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে কক্সবাজারের মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ সরঞ্জামসহ একটি মালবাহী মাদার ভেসেল নতুন চ্যানেল দিয়ে আগামী মঙ্গলবার মাতারবাড়ী জেটিতে নোঙর করবে। রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

দেশে সাশ্রয়ী মূল্যে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকার ১২০০ মেগাওয়াট মাতারবাড়ী সুপার-ক্রিটিকেল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণ করছে। পরীক্ষামূলকভাবে উন্নত চ্যানেলের মাধ্যমে মাতারবাড়ী জেটিতে সরাসরি প্রথম মালবাহী মাদার ভেসেল নোঙর করা বাংলাদেশের জন্য একটি ‘বিশেষ মাইলফলক’।

একজন জ্বালানি বিশেষজ্ঞ আজ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে বিভিন্ন বাস্তবানুগ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। তিনি আরো বলেন, সরকার দেশে প্রায় শতভাগ বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করেছে, আর এ মাসের মধ্যে শতভাগ বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করার লক্ষ্য রয়েছে।

এর আগে, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, সাশ্রয়ী মূল্যে সারা দেশে নিরবচ্ছিন্ন ও মানসম্পন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত করার চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, ক্ষমতা বাড়ানো এবং সংক্রমণ লাইনের মাধ্যমে সবার জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক বিদ্যুৎ ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য সরকার কঠোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং কেবল ও উপকেন্দ্রগুলো ভূগর্ভস্থ করারও চেষ্টা চলছে।

মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে বর্তমান সরকার সময় সাপেক্ষ, বাস্তবসম্মত ও টেকসই পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে গত ১১ বছরে ১৮ হাজার ৬০৬ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১১৩টি নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করেছে।

এতে আরো বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২৩ হাজার ৫৪৮ মেগাওয়াটে পৌঁছেছে এবং দেশের প্রায় ৯৮ শতাংশ মানুষকে বিদ্যুতের আওতায় আনা হয়েছে।

নসরুল হামিদ বলেন, সরকার বিদ্যুৎ সরবরাহে দেশকে স্বনির্ভর করতে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধিতে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী ও গতিশীল নেতৃত্বের কারণে এটি সম্ভব হয়েছে।-বাসস।

আপনার মন্তব্য লিখুন