প্রধানমন্ত্রীর জন্য আনারস উপহার পাঠালেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

tripura-pineapple-110721-01.jpg

রোববার সকাল সোয়া ৯টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে উপহারের এই আনারস গ্রহণ করেন চট্টগ্রামে ভারতের সহকারী হাই কমিশনের দপ্তরের দ্বিতীয় সচিব উদত ঝা।

আখাউড়া স্থলবন্দরের সহকারী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, “ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিনিধি দল আখাউড়া স্থলবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য উপহার হিসেবে আনারসগুলো নিয়ে আসেন।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আনারস উপহার পাঠিয়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী।

“৮০টি কার্টনে মোট ৮০০ কেজি আনারস উদত ঝার হাতে তুলে দেওয়া হয়। ভারতীয় হাই কমিশন এই উপহার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছে দেবে।”

 

ভারাতীয় মিশনের কর্মকর্তা উদত ঝা সাংবাদিকদের বলেন, “ভারত ও বাংলাদেশর সম্পর্ক দিন দিন আরও মজবুত হচ্ছে। এই উপহার আদান-প্রদান দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কেরই নিদর্শন।

“আশা করছি উপহারগুলো আজই ঢাকায় পৌঁছে যাবে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে হস্তান্তর করা হবে।”

আখাউড়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাইফুল ইসলাম, আখাউড়া স্থলবন্দরের সহকারী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান ও আখাউড়া স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আনারস উপহার পাঠিয়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী।

এর আগে গত ৫ জুলাই আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের জন্য উপহার হিসেবে ৩০০ কেজি হাড়িভাঙ্গা আম পাঠান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগরতলার বাংলাদেশ মিশনের মাধ্যমে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীকে সেই উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়।

 

আম পাওয়ার পরদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান বিপ্লব কুমার দেব।

ত্রিপুরার এই বিজেপি নেতার পৈতৃক ভিটা চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার সহদেবপুর পূর্ব ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামে। মুক্তিযুদ্ধের সময় তার বাবা-মা ত্রিপুরায় চলে যান।

 

২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছিলেন বিজেপি নেতা বিপ্লব কুমার দেব। ফাইল ছবি

ত্রিপুরাতেই বিপ্লবের জন্ম। তার কাকা প্রাণধন দেব কচুয়া উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি।

 

২০১৮ সালে ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচনে বিপ্লব কুমার দেবের নেতৃত্বে বড় বিজয় পায় ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। এর মধ্যে দিয়ে ত্রিপুরায় দুই যুগের বাম শাসনের অবসান ঘটে।

আপনার মন্তব্য লিখুন