পরীমণির মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই

advocate-20210831154300.jpg

তিনটি বিষয় বিবেচনা করে চিত্রনায়িকা পরীমণিকে জামিন দিয়েছেন আদালত। মামলার অভিযোগপত্র দাখিল হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি জামিনে থাকবেন বলেও জানিয়েছেন তার আইনজীবী মজিবুর রহমান।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) বিকেলে পরীমণির মামলার জামিন আবেদন শুনানি শেষে তার আইনজীবী এসব কথা বলেন।

পরীমণির আইনজীবী মজিবুর রহমান বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন এর ৪৭ ধারায় দায়ের করা মামলায় পরীমণি নারী হিসেবে সুবিধা পাবেন। যেহেতু আসামি পরীমণি একজন নারী দেশে বিদেশে তার পরিচিত আছে। এছাড়া তার কিছু সিনেমা প্রক্রিয়াধীন এবং পরিচালকের সঙ্গে এ বিষয়ে তার চুক্তি আছে। পরীমণির সিনেমার চুক্তি বাঁচাতে, শরীরিক অবস্থা বিবেচনায়, সে ইতোমধ্যে জেল হাজত ও পুলিশ হেফাজতে ২৬ দিন ছিল, তাকে তিন বার রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে এবং এ মামলায় তার বিরুদ্ধে এখনো কোনো প্রমাণ রাষ্ট্রপক্ষ না দিতে পারায় আমরা আদালতের কাছে জামিন আবেদন করেছি। এসব বিবেচনায় বিজ্ঞ আদালত জামিন মঞ্জুর করেছেন।

তিনি বলেন, দেশে আইন আছে, আইনের শাসন আছে এবং আদালত আছে। আমাদের আদালতের ওপর আস্থা রাখতে হবে। এ মামলায় তার বিরুদ্ধে আইস ও এলএসডি রাখারও অভিযোগ ছিল। এমন একটি মামলায় নিম্ন আদালত ও হাইকোর্টে খুবই সতর্কতার সঙ্গে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছি। আর সেই কারণে আজকে এ জামিন মঞ্জুর হয়েছে।

পরীমণির মুক্তিতে আর কোনো বাধা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আপাতত পরীমণির মুক্তিতে কোনো বাধা নেই।’

আজকে পরীমণির মুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করব যাতে আজকেই যেন তাকে জেলহাজত থেকে মুক্ত করা যায়।

এ ধরনের মামলায় এত দিন হাজাতবাস থাকার আর কোনো নজির আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, রিমান্ড বার বার নেওয়া যেতে পারে। তবে দেখতে হবে রিমান্ডের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু। অপ্রয়োজনীয় রিমান্ড কখনো নেওয়া যাবে না। অপ্রয়োজনীয় রিমান্ড অবৈধ।

কী কন্ডিশনে আদালত রিমান্ড দিয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগপত্র হওয়ার আগ পর্যন্ত পরীমণি জামিনে থাকতে পারবেন বলে আদালত জানিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন