নীরবে চলে গেলেন আরাকানের শীর্ষ আলেম মুফতি ক্বারী ইরাশাদ

Screenshot_20210119-193207.jpg

আব্দুল্লাহ আল ফারুক::

এত বড় একজন আলেম রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে নিরবে নিভৃতে মারা গেলেন, অথচ পুরো দেশ তো পরের কথা, বাংলাদেশের উলামায়ে কেরামের মাঝেও কোনো চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়নি। খুবই দুঃখ লাগছে।

তাঁর নাম, মুফতি ক্বারী মুহাম্মদ ইরশাদ হুসাইন ক্বাসিমী। তাঁর নিবাস ছিল বার্মার মুংগডুতে। তিনি আরাকান মুসলিমদের একজন প্রভাবশালী ধর্মীয় নেতা ছিলেন।

দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশুনা সম্পন্ন করার পর আরাকানের মুংগডুতে জামিয়াতুল আশরাফিয়ার শাইখুল হাদীস হিসাবে কর্মরত ছিলেন।
এছাড়াও তিনি বার্মার সরকারি চ্যানেলে কুরআন তিলাওয়াত করতেন।

রোহিঙ্গাদের ওপর সামরিক জান্তার অমানবিক নির্যাতনের সময় তার নাগরিত্ব বাতিল করে দিয়ে তাঁর ওপর অকথ্য নির্যাতন চালানো হলে তিনি বাংলাদেশে হিজরত করতে বাধ্য হন।

গতকাল দুপুর দু’টায় কক্সবাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আজ সকালে তার জানাজা সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

শোনা যায়, মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ১১০ বছর হয়েছিল। আল্লাহ তাকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করুন। জীবদ্দশাতে আমরা তাঁর যথাযোগ্য মর্যাদা দিতে পারিনি।

  1. তাই বলে কি এমন মহান মানুষটির জন্যে যথাযোগ্য রাজকীয় বিদায়ের ব্যবস্থা করা যেত না! মাঝে মাঝে ইচ্ছে হয়, কাগজ-কলম একপাশে রেখে গণমানুষের ইসলামি রাজনীতিতে নেমে পড়ি। প্রচলিত ইসলামি রাজনীতির খোলনলচেটাই বদলে ফেলা দরকার। প্রায় সময় মনে হয়, রাজপথের উন্মত্ততা নয়, প্রয়োজন সুদূরপ্রসারী বুদ্ধিবৃত্তিক গণআন্দোলন।
আপনার মন্তব্য লিখুন