দিল্লির আদালত কক্ষে গোলাগুলি, গ্যাংস্টারসহ নিহত তিন

india.jpg

ভারতের দিল্লির একটি আদালত কক্ষে আজ শুক্রবার গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে এক গ্যাংস্টারসহ তিনজন নিহত হয়েছেন এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

উত্তর দিল্লির আদালত ভবন রোহিনিতে এই গোলাগুলির ঘটনায় নিহত গ্যাংস্টারের নাম জিতেন্দার গোগি। বিরোধী পক্ষের দুই দুর্বৃত্তও পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। তারা প্রতিপক্ষ ‘টিল্লু গ্রুপের’ সঙ্গে জড়িত। দুর্বৃত্তরা আইনজীবীর পোশাক পরে আদালত কক্ষে অবস্থান নিয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।আজ একটি মামলায় হাজিরা দেওয়ার জন্য জিতেন্দ্রর গোগিকে দিল্লির তিহার জেল থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল। সেখানেই মামলার শুনানি চলাকালে গোলাগুলির সূত্রপাত হয়।

মামলার আইনজীবী ললিত কুমার এনডিটিভিকে বলেন, ‘বিচারক তখন এজলাসে। আইনজীবীরা সেখানে উপস্থিত আর জিতেন্দর গোগি পাশেই ছিলেন। আইনজীবীর পোশাক পরিহিত দুজন তার দিকে এগিয়ে যায় এবং গুলি করা শুরু করে।’

দিল্লির পুলিশ কমিশনার রাকেশ আস্তানা বলেন, ‘আদালত কক্ষের মধ্যেই দুজন জিতেন্দ্রর গোগিকে লক্ষ্য করে গুলি করা শুরু করে। পুলিশও তখন দুর্বৃত্তদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে দুই দুর্বৃত্ত নিহত হয়।’

‘পুলিশ দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে দুই দুর্বৃত্তকে হত্যা করে। মোট তিনজন নিহত হয়েছে’, যোগ করেন রাকেশ আস্তানা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, গোলাগুলির শব্দ শুনে আদালত প্রাঙ্গণে আইনজীবী ও পুলিশ সদস্যরা দৌড়াদৌড়ি করছেন। সবাই ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করছিলেন।

গোগি এবং টিল্লু গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব দিল্লির অপরাধ জগতে পুরানো। দুপক্ষের দ্বন্দ্বে অন্তত ২৫ জনের প্রাণ গেছে। গোগি ছিল দিল্লি পুলিশের ‘মোস্ট ওয়ান্টেট’। গত মার্চে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। সেই থেকে তিনি কারাগারেই ছিলেন।

আদালত কক্ষের মধ্যে এই ধরনের গোলাগুলির ঘটনা নিরাপত্তা নিয়ে নানা প্রশ্ন ও সন্দেহের জন্ম দিবে সেটাই স্বাভাবিক। তবে দিল্লি পুলিশ এখন সেসব নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চায় না।

দিল্লির পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে বিষয়টি তদন্ত করা শুরু করেছি। এই ঘটনার সঙ্গে যারা যুক্ত তাদের কাউকে আমরা ছাড় দিব না। কেউ ছাড় পাবে না।’

আপনার মন্তব্য লিখুন