কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের কাছে কিশোরীর বিবস্ত্র লাশ

death-2021-01-31-16-09-34.jpg

দিসিএম

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের কাছ থেকে এক কিশোরীর (১৪) মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম আবুল খায়ের (৩০)। শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাজেদুল ইসলাম প্রথম আলোকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

এই ঘটনায় মৃত কিশোরীর মা বাদি হয়ে শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা করেছেন। শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে কিশোরীকে প্রায় অচেতন অবস্থায় তার সঙ্গীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কতর্ব্যরত চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মামলার এজাহারে বাদি অভিযোগ করেছেন, আসামি আবুল খায়ের তাঁর মেয়েকে কথা আছে বলে রাত আড়াইটার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পেছনে তেলশাহর মাজারের কাছে নিয়ে যান। পরে তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করেন এবং গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করেন। মেয়ের সঙ্গীরা তাকে খুঁজতে খুঁজতে তেলশা মাজারের কাছে যায়। সেখানে গলায় ওড়না পেঁচানো ও বিবস্ত্র অবস্থায় তারা মেয়েকে উদ্ধার করে। কাছেই আবুল খায়েরকে তারা পোশাক পরতে দেখে। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে মারধর করে পুলিশে খবর দিলে তাঁকে আটক করে পুলিশ। মেয়েটিকে পুলিশের সহযোগিতায় হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার এসআই কমল কৃষ্ণ সাহা মেয়েটির সুরতহাল করেন। কিশোরীর গলায় আঘাতের চিহ্ন দেখেছেন বলে তিনি প্রথম আলোকে জানান।

কিশোরীর মা প্রথম আলোকে বলেন, ছোটবেলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঘুরে ঘুরে ফুল বিক্রি করত তাঁর মেয়ে। লজ্জায় ইদানীং আর বেরুতে চাইত না। অনেকদিন পর গতকাল বান্ধবীদের সঙ্গে ক্যাম্পাসে বেড়াতে এসেছিল।

আপনার মন্তব্য লিখুন