অবশেষে জামিন পেলেন পরীমণি

Screenshot_20210831-152359.jpg

অবশেষে জামিন পেলেন চিত্রনায়িক পরীমণি। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত মাদক মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন। জামিনের ক্ষেত্রে আসামি নারী এবং তার শারীরিক অসুস্থতার বিষয়টি বিবেচনায় এসেছে।

জামিন শুনানিতে আসামির আইনজীবী মুজিবর রহমান বলেন, ৭ দিন রিমান্ডে নিয়ে কোনো তথ্য উদঘাটন করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। উদ্ধার করা দ্রব্য মাদক কিনা তার প্রমাণাদি মিলেনি। তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ। রিমান্ডে থাকায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পরীমণি অনেকগুলো সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ। কারাগারে থাকায় সেগুলোর শ্যুটিং বন্ধ হয়ে আছে। মাদকের যে আইনে মামলা তাতে, নারী আসামি জামিন পেতে পারেন। জামিন পেলে তিনি কোথাও পলাতক হবে না।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আবদুল্লাহ আবু জামিন আবেদনের বিরোধিতা করে বলেন, তারা বাসা থেকে উদ্ধার করা মাদকের বৈধতা দেখাতে পারেনি পরীমণি। ভয়ঙ্কর মাদক এলএসডি পাওয়া গেছে সেখানে। প্রচুর খালি বোতল জব্দ হয়েছে। অভিযানে এক ঘণ্টা সময় ক্ষেপন করে দরজা খোলে পরীমণি। এই সময়ে অনেক মদের বোতল খালি করা হয়েছে। আইনের চোখে সবাই সমান। সেজন্য জামিনের বিরোধিতা করে রাষ্ট্রপক্ষ।

এরআগে, গত ২২ আগস্ট পরীমণির আইনজীবী ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিনের আবেদন করেন। আদালত শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। পরীমণির আইনজীবী এ বিষয় নিয়ে উচ্চ আদালতে যান। উচ্চ আদালতের নির্দেশে বিচারক পরীমণির জামিন শুনানির জন্য ৩১ আগস্ট ধার্য করেন।

এর আগে মাদক মামলায় গ্রেফতার পরীমণির জামিন আবেদনের শুনানি ২১ দিন পর ১৩ সেপ্টেম্বর নির্ধারণ করেছিলেন মহানগর দায়রা জজ আদালত। ওই আদেশ কেনো বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে গত বৃহস্পতিবার রুল দেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে জামিন আবেদনের শুনানি এগিয়ে (১৩ সেপ্টেম্বরের আগে) এনে দুই দিনের মধ্যে তা করতে কেনো নির্দেশ দেয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছিল রুলে।

গত ৪ আগস্ট চিত্রনায়িকা পরীমণিকে বনানীর বাসা থেকে বিদেশি মদসহ গ্রেফতার করে র‍্যাব। এরপর তিন দফায় পরীমণিকে সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

আপনার মন্তব্য লিখুন