অতি শীঘ্রই ঈদগাঁওতে পুর্ণাঙ্গ থানার কার্যক্রম শুরু হবে-এসপি

Presentation2-4.jpg

নুরুল আমিন হেলালী:

অপরাধ দমনে পুলিশের পাশাপাশি জনগনের সংশ্লিষ্টতা বাড়াতে হবে। অপরাধীদের সঠিক তথ্য পুলিশকে সহযোগিতা করা জনগনের দ্বায়িত্ব। পুলিশের একক প্রচেষ্টায় সকল অপরাধ দমন সম্ভব নই। তবে আমি কথা দিচ্ছি, সার্বক্ষণিক পুলিশ আপনাদের সহযোগিতায় নিয়োজিত থাকবে৷ ঈদগাঁওতে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় সভায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন কক্সবাজারের এসপি মোঃ হাসানুজ্জামান৷

“মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার” এই প্রতিপাদ্যে রবিবার (১৫ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে ৪টায় ঈদগাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়৷

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, পুলিশ জনতার সেবক -একথা কক্সবাজার জেলা পুলিশ প্রমাণ করতে চাই। মাদককারবারী, নারীনির্যাতনকারী, দুর্নীতিবাজদের তথ্য দিয়ে পুলিশকে আপনারা সহযোগিতা করতে পারেন। পুলিশ গুরুত্বের সাথে এসব বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিবেন৷ প্রয়োজনে তথ্য প্রদানকারীর পরিচয় গোপন রাখা হবে৷

পুলিশ সুপার বলেন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধকল্পে সবসময় পুলিশের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। বাল্যবিবাহের প্রভাবে সৃষ্ট বিভিন্ন সমস্যা ও জটিলতার ব্যাপারে সকলকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন। যে কোন মামলা নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে প্রতিবেদন দেওয়া হবে বলেও তিনি আশ্বস্ত করেন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ সর্বদা জনগণের সেবায় নিয়োজিত আছে। পুলিশ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, রাষ্ট্রের আদেশ পালন করা আমাদের দায়িত্ব। জনগণের সাথে পুলিশের সম্পর্ক যেন সৌহাদ্যপুর্ণ ও মসৃণ হয় সে লক্ষ্যে পুলিশ কাজ করে চলেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পুলিশের সেবা পৌঁছে দিতে পুলিশ বদ্ধপরিকর। কক্সবাজার পুলিশেও এ লক্ষ্যে কাজ করে চলেছে।

এই থানার সকল সমস্যা আমাদের জন্য সম্পূর্ণ নতুন। এইখানে কে ভাল কে মন্দ এই ব্যাপারে আমরা এখনো ওয়াকিবহাল নই। অচিরেই আমরা সকল সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজদের চিহ্নিত করতে সক্ষম হব এবং তাদের বিরুদ্ধে ফলপ্রসূ পদক্ষেপ নিতে সক্ষম হব৷ পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম আরো বলেন, মাদক কারবারী, সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ, দখলবাজদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে৷ জনগণের সহযোগিতা পেলে এই ঈদগাঁওতক মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত করা হবে।

শুধুমাত্র পুলিশ প্রশাসন একার পক্ষেই সব দুর্নীতি ও অসঙ্গতি নখ-দর্পণে রাখা সম্ভব নয়। আমাদের প্রত্যেককেই অন্যায়, দুর্নীতি ও অসঙ্গতির বিরুদ্ধে সোচ্চার ও সচেতন হতে হবে৷ পুলিশকে আপনার চারপাশে সংঘটিত সকল দুর্নীতির তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে। এছাড়া আগামী দুই মাসের মধ্যে ঈদগাঁও পুর্ণাঙ্গ থানার কার্যক্রম শুরু হবে। এসময় তিনি সা্ংবািদকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর। পরে ঈদগাঁও থানান জন্য প্রস্তাবিত জায়গা পরিদর্শন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,এএসপি সার্কেল মামুনুল ইসলাম , ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের আইসি পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হালিম।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার নুরুল আজিম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ডাঃ শামশুল হুদা,জালালাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ, ঈদগাঁও ইউপি চেয়ারম্যন আলহাজ্ব ছৈয়দ আলম, ইসলামাবাদ ইউপি চেয়ারম্যন নুর ছিদ্দিক, ভেন্যু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল, জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির চৌধুরী হুমু, বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউপি সদস্যগন, বাজার পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যবৃন্দ, সাংবাদিক ও ঈদগাঁওয়ের সর্বস্থরের সচেতন জনসাধারন।

আপনার মন্তব্য লিখুন