সংবাদ শিরোনামঃ
কক্সবাজার বাসির অভিযোগ ৫ হাজার কোটি টাকার সম্পদ ওরিয়ন পাচ্ছে ৬০ কোটি টাকায়যে কারণে ভারতে পাচার হচ্ছে দুই টাকার নোটরোহিঙ্গাদের মুখে নির্যাতনের বর্ণনা শুনলেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াং হি লিমহেশখালীতে মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে ছেলেরও মৃত্যুনিজের স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা করল মহেশখালীর আহমদ আলীচকরিয়ায় তফসির মাহফিলের বক্তাকে বেদড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখমবাকঁখালী থেকে উদ্ধার লাশের পরিচয় মিলেছেআলীকদমে ১৩ আগ্নেয়াস্ত্রসহ আটক ৩টেকনাফ উপজেলা পরিষদের সংরক্ষিত ২টি মহিলা আসনের তপশীল গোপন করার অভিযোহোয়াইক্যং ৯ হাজার ৯৬৮ পিস ইয়াবাসহ পাচারকারী আটকশ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশাল জয় বাংলাদেশেরটেকনাফে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ লম্বাবিলের জাফর গ্রেপ্তারমিয়ানমারে সাম্প্রদায়িক উস্কানির অভিযোগে এমপি গ্রেপ্তাররাখাইনে ফিরতে নিরাপত্তার নিশ্চয়তা চায় রোহিঙ্গারাতামিম-সাকিব-মুশফিকের ব্যাটে বাংলাদেশ ৩২০ঝুঁকিপূর্ণ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তিবাড়িতে টাকার বিছানা, গুনতে গিয়ে রাত শেষ!ভারতের পরমাণু হামলাক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা২৬, ২৭ জানুয়ারী কক্সবাজারে ২দিনব্যাপী শানে রেসালত সম্মেলনঅতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেলেন রায়হান কাজেমী

রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে, বরের বাবাকে লাখ টাকা জরিমানা

Presentation1-10.jpg

রাফিজা (১৮) নামের এক রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করেন শোয়াইব হোসেন জুয়েল। গত সেপ্টেম্বরের ঘটনা। কিন্তু আইন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী তা নিষেধ। ওই নিষেধাজ্ঞা চ্যালেঞ্জ করতে হাইকোর্টে যান জুয়েলের বাবা বাবুল হোসেন।

সেই বাবুল হোসেনকেই এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ওই জরিমানা দিতে হবে বাবুলকে। নয়তো তাঁর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ সোমবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন এ বি এম হামিদুল মিসবাহ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

মোতাহার হোসেন সাজু জানান, জুয়েল ও রাফিজা এখন পলাতক।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার চারিগ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে শোয়াইব হোসেন জুয়েল কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কাছে একটি মসজিদে রাফিজাকে বিয়ে করেন। কিন্তু আইন মন্ত্রণালয়ের জারি করা নির্দেশনার কারণে বিয়ে নিবন্ধন করতে পারেননি। এ কারণে ওই নির্দেশনার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট দায়ের করেন বাবুল হোসেন।

রিট আবেদনে ২৫ অক্টোবর আইন মন্ত্রণালয় একটি নির্দেশনা জারি করে। ওই নির্দেশনায় বলা হয়, বাংলাদেশি ছেলেদের সাথে মিয়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গা মেয়েদের বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার প্রবণতা লক্ষণীয় হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং কতিপয় নিকাহ রেজিস্ট্রার অপতৎপরতায় লিপ্ত থাকায় ‘বিশেষ এলাকা’ (কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি ও চট্টগ্রাম জেলা) সমূহে নিবন্ধনের ক্ষেত্রে বর কনে উভয়ে বাংলাদেশি নাগরিক কি না বিষয়টি সুনিশ্চিত হয়ে (জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে) উক্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল নিকাহ রেজিস্ট্রারদের নির্দেশনা প্রদান করা হলো। এ বিষয়ে গাফিলতি হলে দায়ী নিকাহ রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ এ নির্দেশনার কারণে বাবুল হোসেনের ছেলের বিয়ে রেজিস্ট্রশন করা যাচ্ছে না।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু বলেন, ‘ফরেনার্স অ্যাক্ট অনুসারে বিদেশিরা নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে যেতে পারে না। এ ছাড়া আইন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুসারে রোহিঙ্গাদের বিয়ে করা যাবে না। কিন্ত এখানে আবেদনকারীরা দুটি অপরাধ করেছেন। ওই মেয়েকে নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে নিয়ে আসা হয়েছে। আবার বিয়ে নিবন্ধন করতে হাইকোর্টে রিটও করেছে। এ কারণে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ টাকা ৩০ দিনের মধ্যে না দিলে ছেলের বাবা বাবুল হোসেনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

শোয়াইব হোসেন জুয়েল যাত্রাবাড়ীর একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। তিনি রাফিজাকে গত সেপ্টেম্বর মাস কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কাছে একটি মসজিদে বিয়ে করেন। বিয়ের ঘটনা জানাজানি হলেই বর জুয়েল ও নববধূ রাফিজা পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

Leave a Reply

Top