বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ করে ইউপি সদস্যকে ছাড়িয়ে নিলেন আ.লীগ নেতারা

Presentation1-6.jpg
সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আজ বুধবার এক ইউপি সদস্যকে আটক করে পুলিশ। তাঁকে ছাড়িয়ে নিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে। 

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আটক করা হয়েছিল এক ইউপি সদস্যকে। তবে ঘটনার পরপর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধসহ আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ওই ইউপি সদস্যের অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেওয়ায় তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ফেঞ্চুগঞ্জ ও পার্শ্ববর্তী বালাগঞ্জ উপজেলার যৌথ অংশে ধুপড়িয়া নামের একটি বিল আছে। সেটিকে কেন্দ্র করে ফেঞ্চুগঞ্জের উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. আব্দুল কাইয়ুমের বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতি ও অন্যায়ভাবে প্রভাব বিস্তার করে উত্তেজনা সৃষ্টির অভিযোগ ওঠে। এ কারণে কয়েক দিন ধরে দুটি উপজেলার মানুষ মুখোমুখি অবস্থান নেন। এতে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দেয়।

একই সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঠেকাতে গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ইউপি সদস্য মো. আব্দুল কাইয়ুমকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে। কাইয়ুম উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকও। তাঁকে আটকের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিলের পাশাপাশি সড়কে অগ্নিসংযোগ করে অবরোধ তৈরি করে। রাত দুইটা পর্যন্ত তারা এ কর্মসূচি পালন করে।

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আজ বুধবার এক ইউপি সদস্যকে আটক করে পুলিশ। তাঁকে ছাড়িয়ে নিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে। ছবি: প্রথম আলো

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আজ বুধবার এক ইউপি সদস্যকে আটক করে পুলিশ। তাঁকে ছাড়িয়ে নিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে। 

আজ বুধবার সকাল থেকে আন্দোলনকারীরা পুনরায় উপজেলা সদরের প্রধান সড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধ করে। এতে উভয় পাশের যানবাহন বন্ধ ছিল। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পুলিশ বৈঠক করে। সেখানে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ পুলিশকে কথা দেন, ভবিষ্যতে যেন কাইয়ুম দাপট না দেখান, সে ব্যাপারে তাঁরা ভূমিকা রাখবেন। পাশাপাশি কাইয়ুমের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখবেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ সকাল ১০টার দিকে কাইয়ুমকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ দায়িত্ব নেওয়ায় কাইয়ুমকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ধুপড়িয়া বিল এলাকায় যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কোনো অবনতি না ঘটে, সে বিষয়ে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ নজরদারি রাখবেন বলে কথা দিয়েছেন। বর্তমানে সার্বিক পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

তবে যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, সেই ইউপি সদস্য মো. আব্দুল কাইয়ুম আজ বেলা পৌনে তিনটার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ এসেছে, তা সত্য নয়। মিথ্যা ও ভুয়া অভিযোগে আমাকে অন্যায়ভাবে আটক করা হয়েছিল।’

ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী বলেন, মো. আব্দুল কাইয়ুমের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে পুলিশ আটক করলে নেতা-কর্মীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে তাঁকে ছাড়িয়ে আনা হয়েছে। তাঁর অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আজ বুধবার এক ইউপি সদস্যকে আটক করে পুলিশ। তাঁকে ছাড়িয়ে নিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে। ছবি: প্রথম আলো

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে দুর্নীতি আর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে আজ বুধবার এক ইউপি সদস্যকে আটক করে পুলিশ। তাঁকে ছাড়িয়ে নিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top