৪২ টনের ঘোষণায় পণ্য এসেছে আড়াইশ কেজি

Container.jpg

চট্টগ্রাম বন্দরে ঘোষণার চেয়ে কম পণ্য মিলেছে চীন থেকে আসা দুইটি কনটেইনারে। আমদানি দলিল মোতাবেক ৪২ টন পণ্যের জায়গায় পাওয়া গেছে আড়াইশ কেজি তামার তার । আজ বুধবার (২৯ জানুয়ারি) বন্দরের সিসিটি ইয়ার্ডে কনটেইনারগুলো খোলার পর এ ঘটনা ধরা পড়ে। এই চালানের মাধ্যমে মুদ্রা পাচার হয়েছে কিনা, সেটি তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।
সূত্র জানায়, চট্টগ্রামের মেহেদিবাগের আমিরবাগ এলাকার ওয়েন্স মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড নামের একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নামে আমদানি করা কনটেইনার দুটি খোলার পর পাওয়া যায় মাত্র আড়াইশ কেজি তামার তার। চট্টগ্রামের চৌমুহনীর জাহান চেম্বারের মাল্টি ভিউ ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড ছিল আলোচ্য চালান খালাসের দায়িত্বপ্রাপ্ত সিএন্ডএফ এজেন্ট।
কাস্টমস কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়, জেটি কাস্টমসের কর্মকর্তারা চালানটি খালাস পর্যায়ে পরীক্ষার সময় একটি কনটেইনারে ১২৫ কেজি, অপরটিতে ১২৭ কেজি ঘোষিত পণ্য পেয়েছে। আলোচ্য চালানের মাধ্যমে মুদ্রা পাচার হয়েছে কিনা, সেটি খতিয়ে দেখে বলা সম্ভব হবে বলে জানান তারা। কাস্টমস কর্মকর্তারা জানান, অনেকসময় দেখা গেছে রপ্তানিকারকের ভুলে কিংবা প্রতারণার ঘটনা ঘটলে সরবরাহকারী টাকা ফেরত দেন বা পুনঃরপ্তানি করেন। গত মাসে তৈরি পোশাক শিল্পের একটি চালানে বালিভর্তি কনটেইনার পাঠিয়ে দিয়েছিল এক রপ্তানিকারক। পরে অবশ্য চাপের মুখে তারা টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top