হতভাগীর পাশে কেউ নেই!

FB_IMG_1566316817425.jpg

শান্তিময় চাকমা, ফেসবুক কর্ণার   
মিসেস বত্তাহুলি চাকমা স্বামী নয়ন মনি চাকমা গ্রাম- ১১নং প্রকল্প, ৫ নং ওয়ার্ড, ৪নং পেরাছড়া ইউপি, খাগড়াছড়ি সদর।

নিদারুন কষ্টে প্রতিটি দিন কাটে তার। যন্ত্রণায় কাতর হয়ে সারা রাত পার হয় নির্ঘুম অবস্থায়। এ যন্ত্রণার যেন শেষ নেই। হতভাগীরও নিষ্পলক পানে চেয়ে থাকা ছাড়া আর কোন গন্তব্য ও নেই। দিনমজুর স্বামী গরীব ও তার স্থায়ী ঠিকানা হোজোইছড়ি, তুলবান, মারিশ্যা, রাঙ্গামাটি হওয়ায় সুবাদে বর্তমান বাসস্থানে তাদের কোন বিষয় আশয় নেই। অন্যদিকে নেই তো নেই হতভাগীর পিতৃদেবও জীবত নেই। বৃদ্ধ মা যিনি আছেন তিনিও শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও অচল হয়েই আছেন। দুইভাই থাকলেও ভাইয়েরাও অন্যের বাসা বাড়ীতে মজুরী করে নিজেরা কোন রকম বেঁচে আছেন মাত্র। এই হলো হতভাগীর হতভাগ্য জীবনের চিত্র। তাই সন্তান জন্মদানের পর রোগটি দেখা দিলেও অর্থ ও সচেতনতার অভাবে সু-সুদীর্ঘ ১৭টি মাস চিকিৎসা হতে বঞ্চিত থাকতে হয়েছে।

শান্তিময় চাকমা নামের এক সমাজ কর্মি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের টাইমলাইনে এমনভাবেই তুলে ধরেন বিষয়টি। যেখানে তিনি ওই মেয়ের রোগে অক্রান্ত  একটি  স্তন্যের ছবি যুক্ত করেছেন।
শান্তিময় চাকমা টাইমলাইনে লেখেন, কয়েকদিন আগে আমার সহকর্মী ও শ্রদ্ধাভাজন দাদা ৪নং পেরাছড়া ইউপি মেম্বার বাবু Sona Chakmaর অনুরোধে মেয়েটির আংশিক চিত্র ফেসবুকে তুলে ধরি। পোস্টটি আজ পর্যন্ত ৭২৩জন শেয়ার করেছেন। অনেকে সহানুভুতির সহিত চিকিৎসার জন্য সহযোগিতার আশ্বাসও দিয়েছেন। তাই আমি আমার ফ্রেন্ডলিষ্টে থাকা শ্রদ্ধাভাজন ডাঃ সুবল জ্যোতি স্যারকে ইনবক্সে ছবি পাঠিয়ে পরামর্শ কামনা করি। ডাঃ সুবল জ্যোতি মহাশয় আমাকে ডাঃ টুটুল স্যারকে রোগীকে দেখাতে বলেন।

অন্যদিকে আমার নিজের পারিবারিক কাজের ব্যস্থতা আমাকে দেয়না অবসর। তাই হতভাগী বোনটির অসহায় অবস্থা জানার পরও সময়ের অভাবে একটি বারের জন্য দেখে আসার সময় হয়নি। অবশেষে আজ শ্রদ্ধাভাজন দাদা সোনা চাকমা মেম্বার সহ বোনটিকে দেখতে গেলাম। দেখেই মনকে কি বলে বুঝায়, কি করি হম্বিতম্বি হই। অবশেষে হতভাগীর দুরবস্থা দেখে উপস্থিত মুরুব্বীদের সকাতরে আবেদন জানালাম-
বললাম, মেয়েটি সবার মা, বোন, মেয়ে। তার দুঃসময়ে আপনারা তার পাশে দাঁড়ান। আপনারা আজ সকল পাড়াবাসীরা মিলে হতভাগীকে মুষ্টি সহযোগীতার মাধ্যমে প্রাথমিক চিকিৎসার খরচ জোগাড় করে দিন। প্রাথমিক চিকিৎসা পেলে অন্ততঃ বুঝা যাবে মেয়েটির চিকিৎসা সম্ভব নাকি অসম্ভব। জানিনা পাড়াবাসীরা আমার প্রস্তাব কতটুকু বিবেচনায় নিবেন। তবে উপস্থিত মুরুব্বীরা সায় দিয়েছেন যখন আশা করি গন্যমান্য মুরুব্বী মহলেরা আজ বিকাল বেলায় অন্ততঃ তাই করবেন।

আমি আমার ফেসবুক বন্ধু মহল সকলকে শ্রদ্ধা ও সম্মান নিবেদন পুর্বক সবিনয়ে অনুরোধ করছি। বাসযোগ্য পৃথিবীতে অবহেলা অযত্নে একটি মায়ের এমন অবস্থা কখনো কাম্য নয়। সভ্য সমাজে আধুনিক জীবনমানে এটি জাতি হিসেবে আমাদের চরম লজ্জারও বটে। তাই তার নুন্যতম চিকিৎসা নিতান্তই জরুরী।

সেহেতু হতভাগী মা, বোন ও মেয়েটিকে চিকিৎসার জন্য কেউ অর্থ সহযোগিতা করতে চাইলে-

Karnal Chakma – 01820731481 (বিকাশ পারসোনাল)
Tapash Changma Baburow- 01828867782 (বিকাশ পারসোনাল)

যোগাযোগ –
রোগীর বৌদি- মিতি মা – 01572483884
সোনা মনি চাকমা (মেম্বার)- 01556772529

বিদ্র- স্পর্শকাতর ছবি ব্যবহার করায় ক্ষমাপ্রার্থী।

আপনার মন্তব্য লিখুন