সামাজিক মাধ্যমে মুসলিম বিরোধী পোস্ট করায় ব্রিটিশ নাগরিকের দন্ড

436506_157.jpg

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ছবির সাথে মুসলিমবিরোধী বার্তা পোস্ট করে ঘৃণাবাদী অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন এক ব্রিটিশ নাগরিক। ওয়েলসের রাজধানী কার্ডিফের ক্রাউন আদালত বুধবার জয় ডেভিসন (৩৮) নামের ওই ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত ঘোষণা করেন। আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে দন্ড ঘোষণা করা হবে।

গত বছরের আগস্টে ৩৯৪ জন ইন্সটাগ্রাম ফলোয়ারের সাথে সহিংস বিষয় শেয়ার করেন জয় ডেভিসন। একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপেও এর স্ক্রিনশট শেয়ার করেন তিনি। ওই গ্রুপের এক সদস্য উদ্বিগ্ন হয়ে পুলিশে খবর দেন।

যুক্তরাজ্যের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস (সিপিএস) এর বিশেষ অপরাধ ও কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের প্রধান জেনি হপকিনস বলেন, এটা সেই সব মানুষদের জন্য সতর্কতা, অনলাইনে সহিংস বা ঘৃণার বিষয় পোস্ট করলে অফলাইনে তাদের ক্ষতিকর পরিণতির মুখে পড়তে হবে।

হপকিনস আরও জানান, যে বিষয়টি জয় ডেভিসন পোস্ট করেছিলেন তা স্পষ্টভাবে হুমকিমূলক, নিপীড়ক ও অবমাননাকর ছিল। এর একমাত্র উদ্দেশ্য হতে পারে ধর্মীয় ও বর্ণবাদী ঘৃণায় উসকানি দেয়া। তিনি বলেন, ওই কাজের সময় মদ্যপ থাকার দাবি করে নিজের কর্মকান্ডের জন্য দুঃখপ্রকাশ করলেও বিচারকেরা তা আমলে নেননি।

গত বছর বার্তা প্রকাশের কয়েক দিনের মাথায় পুলিশ এই ৩৮ বছর বয়সী ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর ওই ব্যক্তি দাবি করেন, এক সন্ধ্যায় মদ পানের পর এই ঘটনা ঘটান তিনি। নিজে কোনও বর্ণবাদী মতবাদ পোষণ করেন না এবং কোনও উসকানি দেওয়াও তার উদ্দেশ্য ছিল না বলে দাবি করেন। যে ছবিটি তিনি পোস্ট করেছিলেন তা এক বন্ধুর বাসায় খেলনা বন্দুকের সঙ্গে তোলা হয়েছিল। তবে ওই বন্ধুর নাম জানাতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।

ওই ছবির সাথে তিনি মানুষকে ‘জেগে উঠার’ উসকানি দেন। আর নাৎসী ও শ্বেতাঙ্গ আধিপত্য বর্ণনা করার মতো শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করেন যাতে মুসলমান ও ইসলামের প্রতি তার ঘৃণা নির্দেশ করে।

প্রসিকিউশনের তরফে আদালতে জানানো হয়, নিজের কর্মকান্ডের জন্য এখন অনুতপ্ত ডেভিসন। তবে উদ্দেশ্যমূলকভাবে মুসলমান বিরোধী ঘৃণাবাদ ছড়িয়েছেন তিনি আর এই ধরণের কর্মকান্ডকে মদ্যপ থাকা কোনও অজুহাত হতে পারে না বলেও আদালতকে জানানো হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন