সক্রিয় হচ্ছে জোটের রাজনীতি

left-allaiance.jpg

দিসিএম

ভোট এলে জোট গঠন, জোটে ভাঙন নতুন কিছু নয়। নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে, সক্রিয় হচ্ছে জোটের রাজনীতি। সম্প্রতি গঠিত জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও যুক্তফ্রন্ট তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ।

তবে আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে যেসব জোট হচ্ছে, তাদের কেউ কেউ বলছে, সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ ফিরিয়ে আনাই তাদের লক্ষ্য। এই দাবিতে, ৮টি দলের সমন্বয়ে গঠিত বাম গণতান্ত্রিক জোট রাজপথে সক্রিয়।

বৃহৎ এই জোটের দাবি, তাদের সাথেই আছে বাম গণতান্ত্রিত জোট।

তবে, বাম জোট নেতারা বলছে, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও যুক্তফ্রন্টের জোটে এখনই যোগ দেয়ার সম্ভাবনা নেই। বরং তাদের রাজপথে আসার আহবান বাম জোটের। তবে কোনো শরিক দল জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সাথে সমঝোতা বা আলোচনা করতে চাইলে বাধা নেই, বলে জানিয়েছেন বাম জোটের নেতারা।

তবে কয়েকদিন ধরে রাজনীতিতে এমন গুঞ্জনও আছে যে, এই বাম গণান্ত্রিক জোট যুক্ত হচ্ছে ড. কামালের গণফোরাম কিংবা বি. চৌধুরী-মান্নার যুক্তফ্রন্টের সাথে।

অবশ্য বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়কারী সাইফুল হক ও ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের মোশাররফ হোসেন নান্নু বলছেন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও যুক্তফ্রন্টের সাথে এখনই যোগ দেয়ার সম্ভাবনা নেই।

জোটের পরিধি বাড়ানোর আগে সুষ্ঠু নির্বাচনি পরিবেশ নিশ্চিতের দাবিতে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও যুক্তফ্রন্টকে রাজপথে নামার আহ্বান জানিয়েছেন সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও গণসংহতি আন্দোলন প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।

মাস খানেক আগে আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের সাথে বেঠক হয়েছে সিপিবির। আর জোনায়েদ সাকীর সাথে দেখা হয়েছে ড. কামালের।

আপনার মন্তব্য লিখুন