সরকারি নির্দেশনার আলোকে জেলার সার্বিক উন্নয়ন আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে 

রোহিঙ্গা উৎপাত বন্ধ করতে হবে- চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী

-নির্দেশনার-আলোকে-জেলার-সার্বিক-উন্নয়ন-আইনশৃঙ্খলা-নিয়ন্ত্রণে-.jpg

বার্তা পরিবেশক :
]চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার শান্তিপুর্ণ পরিবেশ নিশ্চিতের মাধ্যমে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের অধীন বর্তমান সরকারের গৃহিত উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ সন্তোষজনক ভাবে সম্পাদনে এবং চলমান কাজের অগ্রগতি ও অধিক গুরুত্বপুর্ণ এলাকায় নতুন প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিয়মিত পরিকল্পনা কর্মসুচির অংশ হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) সকালে উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  চকরিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন মোহনায় অনুষ্ঠিত উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী।  চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উন্নয়ন সমন্বয় সভায় বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা.মোহাম্মদ শাহবাজ, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা নাজমুল হক, উপজেলা প্রকৌশলী কমল কান্তি পাল, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা হাবিবা জাহান, সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তারা। সভায় আরও বক্তব্য দেন চিরিঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ জসীম উদ্দিন, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, বমুবিলছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মতলব, খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রহমান, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমদ সিকদার, হারবাং ইউপি চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম, বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান এসএম জাহাংগীর আলম, কোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার, পুর্ববড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম দুলাল, কৈয়ারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মক্কী ইকবাল হোসেন, বদরখালী ইউপি চেয়ারম্যান খাইরুল বশর, ঢেমুশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আলম জিকু, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা কাইছার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত হোসেন প্রমুখ। অনুষ্টিত সমন্বয় সভায় সভাপতি চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী বলেছেন, সরকার প্রধান শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে নিয়ে সুন্দর আগামীর স্বপ্ন দেখেন। জনগনকে উন্নতমানের সমৃদ্ধ দেশ উপহার দিতে কাজ করছেন। তাঁর সুদক্ষ নেতৃত্বে দেশের প্রতিটি সেক্টরে পরিকল্পিত উন্নয়নে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ উন্নতশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে। সরকারের উন্নয়ন ধারাবাহিকতায় বর্তমানে চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি জনপদ পরিকল্পিত উন্নয়নে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। আগামীতেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে।  তিনি বলেন, চকরিয়া উপজেলাসহ পুরো কক্সবাজার জেলায় সরকারের উন্নয়ন অগ্রগতি বাস্তবায়ন ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে বড় বাঁধা রোহিঙ্গা উৎপাত। রোহিঙ্গাদের অবাধ অবস্থানের কারনে এলাকার উন্নয়ন অগ্রগতি যেমন বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে, তেমনি এলাকার আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে বিরূপ প্রভাব পড়ছে। তাই সরকারি নির্দেশনার আলোকে কক্সবাজার জেলার সার্বিক উন্নয়ন অগ্রগতি ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নের প্রয়োজনে নিয়ন্ত্রনে রাখতে রোহিঙ্গাদের অবাদ উৎপাত বন্ধ রাখতে হবে। সেইজন্য প্রশাসনের পাশাপাশি প্রতিটি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিবৃন্দকে সজাগ ভুমিকা পালন করতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন