মোটরসাইকেল ব্যবহার করতে পারবেন সাংবাদিকেরা

received_348676822380482-768x576-3.jpeg

মোটরসাইকেলে স্টিকার লাগিয়ে নির্বাচনী খবর সংগ্রহ করতে পারবেন সাংবাদিকেরা। নির্বাচন কমিশন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের জনসংযোগ শাখার সহকারী পরিচালক মো. আশাদুল হক সাংবাদিকদের জানান, খবর সংগ্রহে মোটরসাইকেল ব্যবহারের যে নিষেধাজ্ঞা ছিল, তা তুলে নেওয়া হয়েছে। আগের মতো স্টিকার লাগিয়ে সাংবাদিকেরা নির্বাচনের দিন খবর সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে মোটরসাইকেলের বৈধ কাগজপত্র এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স লাগবে।

২২ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়, সাংবাদিকদের মোটরসাইকেল ব্যবহার করার জন্য কোনো স্টিকার দেওয়া হবে না।

ইসির যুগ্ম সচিব (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামানের সই করা নীতিমালায় বলা হয়, নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে দেওয়া বৈধ কার্ডধারী সাংবাদিক সরাসরি ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন। ভোটকেন্দ্রে ঢোকার পর প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে অবহিত করে ভোটগ্রহণ কার্যক্রমের তথ্য সংগ্রহ, ছবি তোলা এবং ভিডিও ধারণ করতে পারবেন। তবে কোনো ক্রমেই গোপন কক্ষের ছবি সংগ্রহ কিংবা ধারণ করতে পারবেন না। ভোটকক্ষের ভেতর থেকে কোনোভাবেই সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না। ভোটকেন্দ্রের ভেতর থেকে সরাসরি সম্প্রচার করতে হলে ভোটকক্ষ থেকে নিরাপদ দূরত্বে গিয়ে তা করতে হবে। সাংবাদিকেরা ভোট গণনা কক্ষে ভোট গণনা দেখতে পারবেন, তবে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না। ভোটকক্ষ থেকে ফেসবুকসহ কোনো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরাসরি প্রচার করা যাবে না।

গতকাল সম্পাদক পরিষদ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর চিঠি দিয়ে নির্বাচনের দিন এবং এর আগের ও পরের দিন সারা দেশে সাংবাদিক, সংবাদকর্মী ও গণমাধ্যম-সংশ্লিষ্ট যানবাহনের মুক্তভাবে চলাচল নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানায়। সম্পাদক পরিষদ সাংবাদিক বা সংবাদকর্মীদের মোটরসাইকেল ও সাংবাদিক বা সংবাদপত্র পরিবহনকারী যানবাহনের চলাচল অবাধ করারও অনুরোধ জানায়।

আপনার মন্তব্য লিখুন