মুজিবুর রহমানের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা ‘কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন শহর হিসেবে গড়ে তোলা হবে’

37392117_686144238403549_7729962601811017728_n-1.jpg

দিসিএম :
‘আধুনিক পর্যটন শহর হবে কক্সবাজার’-এ সেøাগানে নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করেছেন কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মুজিবুর রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরের লালদীঘির পাড়ের জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ইশতেহার ঘোষনা করেন। ইশতেহারে কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন শহর হিসেবে গড়ে তোলা, কক্সবাজার পৌরসভাকে অনতিবিলম্বে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা, শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন, খাল ও নালা দখলমুক্ত করা, পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসকারীদের নিরাপদ পুনর্বাসন নিশ্চিত করাসহ ২০টি অঙ্গীকার করা হয়েছে। মুজিব নির্বাচনের সেøাগান দিয়েছেন, ‘নৌকা মার্কায় ভোট দিন, দিন বদলের সুযোগ নিন।’
ইশতেহার ঘোষনার আগে মুজিবুর রহমান বলেন, ‘কক্সবাজার শহর এখন নোংরা আবর্জনার শহর, যানজট ও জলাবদ্ধতার শহর। নানা সংকটে জরাজীর্ণ পৌরসভার বহুদিনের এই দৃশ্য পরিবর্তন হতেই হবে। আমি স্বপ্ন দেখি পরিবর্তনের। আমি জানি কিভাবে প্রতিকূলতাকে পরাস্ত করতে হয়। সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে হয়। আমার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবন থেকে অর্জিত অভিজ্ঞতা পৌরবাসীর ভাগ্য উন্নয়নে কাজে লাগাতে চাই।’
তিনি বলেন, ‘নগর পিতা নয়, আমি নাগরিকদের বন্ধু হতে চাই। আমি বুঝি, মেয়র হবেন সব শ্রেণী পেশার মানুষের প্রতিনিধি। যিনি নাগরিকদের কল্যাণে, ন্যায় প্রতিষ্ঠায় তাদেরকে সাথে নিয়ে কাজ করবেন।’
মুজিবের আরও যেসব অঙ্গীকার ঃ ইশতেহারে মুজিব অঙ্গীকার করেছেন, সকল পেশাজীবী প্রবীণ-নবীনের সমন্বয়ে দলমত নির্বিশেষে ওয়ার্ডভিত্তিক উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা হবে। তাঁদের পরামর্শে উন্নয়ন কার্যক্রম ও পরিকল্পনা প্রণয়ন করে তা দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে। কক্সবাজার শহরকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করা হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে সকল পেশার মানুষকে নিয়ে মাদক প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হবে। অপরাধ দমনে কক্সবাজার পৌরসভার জনগুরুত্বপূর্ণ স্থান সিসিটিভি’র আওতায় নিয়ে আসা হবে। নিয়মিত ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করে শহরের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা হবে। এই কাজ তদারকির জন্য ওয়ার্ড ভিত্তিক কমিটি করা হবে। পর্যটন শহরকে যানজটমুক্ত করা হবে। এ সমস্যা নিরসনের জন্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে সড়কের পরিকল্পিত সংস্কার ও উন্নয়ন করা হবে। শহরে একটি আধুনিক শুঁটকী পল্লী গড়ে তোলা হবে। পৌরবাসীর নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে প্রতি ওয়ার্ডে ‘পৌর সার্ভিস সেন্টার’ হবে। ‘হ্যালো পৌরসভা’ নামে কল সেন্টার স্থাপন করে নাগরিক সেবা প্রদান করা হবে। অসহায়-দুস্থ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ‘হেলথ ফান্ড’ গঠন করা হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে ‘পৌর স্বাস্থ্য কেন্দ্র’ করা হবে। যেখানে পৌরবাসী বিনামূল্যে বা নামমাত্র মূল্যে চিকিৎসা সুবিধা পাবেন। জবাবদিহিতা বজায় রাখতে পৌরসভায় ই-গভর্নেস প্রকল্পের আওতায় উন্নয়ন প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে। ডিজিটাল সার্ভে স্কিম দ্রুত বাস্তবায়ন করে পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ড জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে তথ্যকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। পৌরকরসহ সকল বিল পরিশোধে নাগরিক দুর্ভোগ কমাতে ‘স্মার্ট কার্ড’ প্রকল্প চালু করা হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও পৌরসভার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষন করা হবে। বিশেষ কমিটি গঠনের মাধ্যমে সমস্যার তাৎক্ষনিক সমাধান নিশ্চিত করা হবে। পৌরসভার নিজস্ব অর্থায়নে প্রতি ওয়ার্ডে ‘ডিজিটাল শিক্ষালয়’ প্রতিষ্ঠা করা হবে। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন ও সুরক্ষা নিশ্চিত করা হবে। কক্সবাজার পৌরসভা হবে দুর্নীতিমুক্ত। নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে অভিযোগ ও সমস্যা সমাধানে ২৪ ঘন্টা হটলাইন চালু করা হবে। প্রতি ওয়ার্ডে উন্নয়ন পরামর্শ সভা হবে। শহরে সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, পরিবেশ দূষন রোধ, পানি সংকট নিরসন, জলাধার রক্ষা, এতিমদের সুব্যবস্থা, ব্যবসা বাণিজ্যে সংকট নিরসন, ধর্মীয় সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত রাখা, কর্মসংস্থান ও শ্রমিক স্বার্থ রক্ষা, ক্রীড়া ও বিনোদনের ব্যবস্থার উন্নয়ন, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড, তথ্য প্রযুক্তি, নারী শিক্ষা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি, প্রান্তিক মানুষের সুবিধা বৃদ্ধি, আধুনিক কসাইখানা স্থাপন, দুর্যোগ প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহন এবং দারিদ্র বিমোচনে নানা প্রকল্পসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করা হবে।
মুজিবুর রহমানের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।
ইশতেহার ঘোষনা ও সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, জেলা ্আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন, এড. আমজাদ হোসেন, এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, বদিউল আলম সিকদার, শফিকুল কাদের শফি, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, মাহবুবুল হক মুকুল, কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, জিপি ইসহাক, এড. রনজিত দাশ, মাহমুদুল হক চৌধুরী, রাশেদুল ইসলাম, চকরিয়ার পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরী, নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক এড. আবুল কালাম আজাদ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল করসহ নেতৃবৃন্দ।
এর আগে প্রতিদিনের ন্যায় বিভিন্ন ওয়ার্ডে এবং সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করেছেন নৌকার প্রার্থী মুজিবুর রহমান। এসময় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়াসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার নেতৃবৃন্দের সাথেও মতবিনিময় সভায় মিলিত হন তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন