বিখ্যাত গাইনোকোলজিস্ট নূরজাহান ভূঁইয়া আর নেই

CMC.jpg

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও দেশের বিখ্যাত গাইনোকোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. সৈয়দা নূরজাহান ভূঁইয়া আর নেই। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। শারীরিক অসুস্থতাজনিত কারণে তিনি কিছুদিন ধরে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) ভোররাত ৩টার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেন। বাদ জোহর চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ কেন্দ্রীয় মসজিদে মরহুমার নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

ডা. নূরজাহান ভূঁইয়া বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি চিকিৎসা বিষয়ে গবেষণামূলক বই লিখেছেন এবং তার অনেক প্রবন্ধ বেরিয়েছে আন্তর্জাতিক সাময়িকীতে। বাংলানিউজ

১৯৩৯ সালের ২১ ডিসেম্বর ঢাকার ধানমণ্ডিতে তার জন্ম।

ইডেন বালিকা উচ্চবিদ্যালয় এবং ইডেন মহিলা কলেজ থেকে যথাক্রমে এসএসসি ও এইচএসসি পাসের পর ১৯৬৩ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে তিনি এমবিবিএস ডিগ্রি নেন। তারপর লন্ডন থেকে এমআরসিওজি এবং এফআরসিওজি ডিগ্রি লাভ করেন। তার স্বামী শিল্পপতি মো. আমিনুজ্জমান ভূঁইয়া।

১৯৬৮ সালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেয়ার মাধ্যমে শুরু হয় পেশাজীবন।

৭২ সালে সহযোগী অধ্যাপক, ৭৭ সালে অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে যোগ দেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে।

মাঝখানে ৮৭-৮৮ সালে কিছুদিনের জন্য বদলি হয়ে শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে দায়িত্ব পালন করেন ডা. সৈয়দা নূরজাহান ভূঁইয়া। ৮৯ সালে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গাইনি বিভাগের প্রধান হিসেবে যোগ দেন তিনি। তারপর হয়েছেন চমেক অধ্যক্ষ।

এ ছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা অনুষদের ডিন, বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য, চসিক মেয়রের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষক সমিতির সভাপতি, বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

তাঁর চিকিৎসাবিষয়ক বই ‘ক্লিনিক্যাল গাইড টু অবসটেটরিকস অ্যান্ড গাইনোকোলজি’ শিক্ষার্থীদের পাঠ্য।অ

ধ্যাপক ডা. সৈয়দা নূরজাহান ভূঁইয়ার মৃত্যুতে দি চিটাগং চেম্বার অভ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালকমণ্ডলীর পক্ষে সভাপতি মাহবুবুল আলম, সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর হাজ্জাজ ও সহ-সভাপতি তরফদার মো. রুহুল আমিন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

শোক বার্তায় বলা হয়, দেশবরেণ্য এই চিকিৎসাবিদ চট্টগ্রামে চিকিৎসা খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধনের পাশাপাশি দক্ষ ও মানবিক গুণাবলী সমৃদ্ধ আদর্শ চিকিৎসক তৈরিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

তাঁর ছাত্র-ছাত্রীরা বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে চিকিৎসক হিসেবে অনেক খ্যাতি ও সাফল্য অর্জন করেছেন। নেতৃবৃন্দ নুরজাহান ভূঁইয়ার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

উল্লেখ্য, মরহুমার সন্তান ব্যবসায়ী আশিক ভূঁইয়া চিটাগং চেম্বারের প্রাক্তন পরিচালক।

আপনার মন্তব্য লিখুন