পালানোর সময় অস্ত্রসহ ১৬ রোহিঙ্গা গ্রেফতার

IMG_20201010_220800.jpg

শাহেদ মিজান, 

উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে সংঘর্ষের ঘটনায় অস্ত্রসহ ১৬ রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করেছেন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্যরা। এ সময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

শনিবার (১০ অক্টোবর) উখিয়ার বালুখালী চেকপোস্ট ও সোনারপাড়া চেকপোস্টে অভিযানে এসব রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করা হয়। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের এপিবিএন-১৬ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো. হেমায়েতুর রহমান।

সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ের করা মামলার পর গ্রেফতার এড়াতে পালাচ্ছিলেন বলে স্বীকার করেছেন তারা।

হেমায়েতুর রহমান বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা কুতুপালং ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত ছিলেন। তারা গ্রেফতারের ভয়ে ক্যাম্প ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছিলেন।

তিনি বলেন, শনিবার সকালে ক্যাম্প থেকে পালানোর সময় চারটি রামদাসহ চার রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়। সম্প্রতি কুতুপালং ক্যাম্পে সংঘটিত দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় তারা জড়িত ছিলেন।

গ্রেফতাররা হলেন- জিয়াউর রহমান (৩০), মো. উসমান (৩০), সৈয়দ উল্লাহ (২৮) ও মো. রফিক (৩০)। তারা উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্পের বিভিন্ন ব্লকের বাসিন্দা।

অপরদিকে শনিবার সকালে উখিয়ার সোনারপাড়া চেকপোস্টে তল্লাশিকালে ১২ জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন- এজাজুল হক (৬০), রহমত উল্লাহ (২৯), সোনা মিয়া (২১), রশিদ উল্লাহ (১৫), ইয়াছের (২১), উসমান (২১), ইসমাঈল (১৬), কবির আহম্মদ (৪০), সুলতান আহম্মেদ (৪০), আইয়ুব সালাম (২৫), আবুল কাশেম (১৮) ও মো. রফিক উল্লাহ (৩০)।

আপনার মন্তব্য লিখুন