দুর্গাপুজোয় দাওয়াহ স্টল দিয়ে হিন্দুদের কুরআন বিতরণ করছেন মহিলা জামায়াতে ইসলামী

Screenshot_2018-10-18-00-07-10-708_com.android.chrome.jpg
হিন্দু মহিলার স্বেচ্ছায় কোরআন গ্রহণ

সামাউল্লাহ মল্লিক,  শহর জুড়ে পালিত হচ্ছে হিন্দুদের দুর্গাপুজোর মহাঅষ্টমী। কলকাতার বিভিন্ন মণ্ডপের মতোই উপচে পড়া ভিড় রয়েছে মোহাম্মদ আলী পার্কের পূজা মণ্ডপেও। হিন্দুদের দুর্গাপুজোতেও দেখা মিলল কিছু মুসলিম নারীর নিঃস্বার্থ সেবা। ওই মহিলারা পানীয় জল, ফার্স্ট এইড নিয়ে এগিয়ে এলেন হিন্দু ভাই-বোনদের সেবায়। এই দুর্গাপুজোর উৎসবমুখর দিনেও ইসলামের বাণী প্রচার করতে দেখা গেল জামায়াতে ইসলামীর মহিলা কর্মীদের।

এদিন জামায়াতের ওই মহিলা কর্মীরা পানীয় জল, ফার্স্ট এইডের পাশাপাশি সাম্যের বার্তা দিতে বিনামূল্যে বাংলা, হিন্দি এবং ইংরেজী এই তিন ভাষায় কুরআন বিতরণ করেন। শুধু হিন্দুদেরই না, পূজা পরিক্রমায় আসা শিখ, খ্রিস্টান সহ সকল ধর্মের মানুষদের মধ্যেও বিনামূল্যে কুরআন ও ইসলামি বই বিলি করেন জামায়াতের ওই মহিলা কর্মীরা।

পুরো মণ্ডপ প্রাঙ্গণ ঘুরে এবং বিভিন্ন জায়গায় দাঁড়িয়ে থেকে বই বিতরণ করেন নাফিসা ইসলাম, রিজওয়ানা বানু, রশিদা জাহাঙ্গীর, শাকিলা পারভীন, সায়রা মনজুররা।

মণ্ডপের আশেপাশে মানুষের ভিড় রয়েছে চোখে পড়ার মত। এই ভিড়কে কাজে লাগিয়ে জামায়াতে ইসলামী হিন্দের সহযোগিতায় ইসলামিক ইনফরমেশন সেন্টারের পক্ষ থেকে দেওয়া বিভিন্ন ভাষার কুরআন বিতরণ করে ওই মুসলিম মেয়েগুলি। এদিন প্রচুর অমুসলিম কুরআন নিতে ভিড় জমান এই দাওয়াহ স্টলে। শুধু জামায়াতে ইসলামীর মহিলা শাখায় না, জিআইওর মেয়েরাও কুরআন বিতরণে অগ্রণী ভূমিকা রাখছেন

অমুসলিমদের কুরআনের প্রতি এগিয়ে আসা দেখে উচ্ছসিত নাজিমা বলেন, ‘সত্যিই এটি আনন্দদায়ক যে আমরা ইসলামের বাণী জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবার মাঝে পৌছে দিয়ে বিশ্বভুবনে শান্তি কায়েমের কাজে তৎপর হতে পেরেছি। আমরা আগামীতে হিন্দু – মুসলিম নির্বিশেষে একে অপরের পরিপূরক হিসাবে এইদেশে থাকতে চাই।’

সূত্র টিডিএন বাংলা, কলকাতা

আপনার মন্তব্য লিখুন