টেকনাফে নির্বাচনী কর্মীসভা হতে নেতা-কর্মীদের আটক : মুক্তি দাবী

Presentation1-44.jpg

বার্তা পরিবেশক :

টেকনাফে নির্বাচনী কর্মীসভাস্থল হতে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গ-সংগঠনের ২৫জন নেতা-কর্মীদের আটকের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপি। সংবাদ সম্মেলনে আটককৃতদের মুক্তি দাবী করা হয়।

১৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় উপজেলার হ্নীলা বাসষ্টেশনের বিএনপির অস্থায়ী নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক ও টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এডভোকেট মোঃ হাসান ছিদ্দিকী অভিযোগ করেন জানান, বিকাল ৪টায় সাবরাং নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সাইক্লোন শেল্টারে বিএনপি মনোনীত আলহাজ¦ শাহজাহান চৌধুরীর ধানের শীষ প্রতীকের কর্মীসভা চলাকালে জনসাধারণেল বিপূল উপস্থিতি দেখে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ অতি উৎসাহী হয়ে টেকনাফ উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ হাশেম মেম্বার, উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ হাশেম মেম্বার, জেলা বিএনপির সদস্য ও সাবরাং ইউপির সাবেক মেম্বার সোলতান আহমদ বিএ,কবির আহমদ মেম্বার, আবুল মনজুর, জাফর আলম, বাদশা মিয়া, আব্দুল জব্বার, সিরাজ, একরাম, সব্বির, মোস্তাক, জাফর, জসিম উদ্দিন, সাদ্দাম হোসেন, লালু, কাসিম, মোঃ ইদ্রিস পুতু, আব্দুল আমিন, মেহেদী হাসান, মোঃ ফয়সাল (ছাত্র), আছাদুদ জামান (ছাত্র), ফয়সাল (ছাত্র), হ্নীলা বাসষ্টেশন হতে শ্রমিক দল নেতা ছৈয়দ আহমদ, ফরিদ মিয়া এবং মৌলভী বাজার হতে মৌলভী বাজারের আলী আহমদ সহ মোট ২৫জনকে আটক করে নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্ট করেছে। তিনি আরো বলেন, বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে এবং জনগন যাতে বিএনপির প্রার্থীকে ভোট দিতে না পারে সেজন্য এ ধরনের গ্রেফতার ও মামলা দেওয়া হচ্ছে। ভৌতিক মামলা ও গণহারে গ্রেপ্তারের ঘটনা উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। একদিকে সরকার নির্বাচনকে নিজদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে সব কিছু নিজেদের মতো করে সাজাচ্ছে অন্যদিকে বিরোধী দলের এমনকি বিরোধি মত পোষণ করেন এমন অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে গণহারে মামলা ও তাদের বাসা-বাড়িতে তল্লাশি ভাংচুর চালানোর মতো ঘটনা ঘটিয়েছেন।

আসন্ন ৩০ডিসেম্বরের নির্বাচনে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের বিজয় নিশ্চিত জেনে আওয়ামী পুলিশ বাহিনী দিয়ে এই বিজয় ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য পুলিশ বাহিনী লেলিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আটককৃত নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দাবী করছি।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবছার কামাল নোবেল, দপ্তর সম্পাদক মাষ্টার জামিল হোসেন, বিএনপি নেতা জিয়াউর রহমান, উপজেলঅ যুবদলের সহসভাপতি রফিকুল আলম চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা, হ্নীলা উত্তর শাখা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ ইলিয়াছ প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন