জেলায় কমছে ডেঙ্গু রোগি

-কমছে-ডেঙ্গু-রোগি.jpg

এম. বেদারুল আলম :
জেলায় ডেঙ্গু রোগি ক্রমেই কমছে। বিশেষ করে গেল ১ সপ্তাহে আশানুরুপ ভাবে কমেছে এ রোগির সংখ্যা। প্রতিদিনই সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়ছে আক্রান্তরা। কক্সবাজার সদর হাসপাতালের সুপার ডাঃ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলছেন সকলের সম্মীলিত প্রয়াসে সচেতনতা সৃষ্টির কারনে কমে এসেছে ডেঙ্গু রোগি। সারাদেশে যেখানে প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগি বাড়ছে সেখানে কক্সবাজার বলতে গেলে এক প্রকার ঝুঁকিমুক্ত। সরকারের নানা সচেতনতামূলক কার্যক্রমের কারনে এ উন্নতি বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসকগণ। গতকাল ৩০ আগষ্ট রাত সাড়ে ৮ টা পর্যন্ত সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগির সংখ্যা ছিল মাত্র ১৬ জন। যা গত সপ্তাহে ছিল ৩০ জন। গতকালই ৪ জন রোগি সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছে বলে জানান সুপার। তিনি জানান, গতকাল নতুন করে ২ জন রোগি ভর্তি হয়েছে। এরা হলেন নুনিয়াছড়ার আরিফ উল্লাহ (১৭) এবং কলাতলির রেডিসন ব্লু হোটেলের স্টাফ কে কে সিন (২৫)। এভাবে প্রতিদিনই কক্সবাজারে কমছে ডেঙ্গু রোগির সংখ্যা।
কক্সবাজার সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ মহিউদ্দিন জানান, কক্সবাজারে ডেঙ্গুর উন্নতি হচ্ছে প্রতিদিনই। জেলায় মোট ২০৬ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগি সদর হাসপাতালে ভর্তি ছিল তা গতকাল পর্যন্ত কমে ১৬ জনে পৌছেছে। প্রতিদিনই চিকিৎসায় উন্নতি হয়ে হাসপাতাল ছাড়ছে রোগিরা। গতকালও ৪ জন রোগি হাসপাতাল ছেড়েছে। সদর হাসপাতালের ডেঙ্গু সেলের চিকিৎসক ডাঃ শামসুদ্দিন বলেন গতকাল পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগির সংখ্যা ২০৬ থেকে কমে ১৬ জনে পৌছেছে । শহরের নুনিয়াছড়াতে ডেঙ্গুর প্রাদূর্ভাব বেশি যার কারনে সেখান থেকে বেশি ডেঙ্গু রোগি ভর্তি হয়েছিল। গতকাল ও ১ জন ভর্তি হওয়ায় সেখানে সচেতনতা বাড়ানো জরুরি বলে মনে করেন এ চিকিৎসক।
তত্বাবধায়ক ডাঃ মহিউদ্দিন জানান-সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগির জন্য হেল্প ডেক্স গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে। ডেঙ্গু সেলের টিমে কাজ করছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক যথাক্রমে ডাঃ কবির আহমেদ, ডাঃ আবু মোহাম্মদ শামসুদ্দিন, ডাঃ শ্হাজাহান এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নোবেল কুমার বড়–য়া। তাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা কক্সবাজার ডেঙ্গুশূণ্য করতে ভূমিকা রাখবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন