কচ্ছপিয়া-গর্জনিয়ায় পথসভায় মহাজোট প্রার্থী

জনতার জোয়ারে ভাসবে শেখ হাসিনার উন্নয়নের নৌকা- সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি

95bd8556e19e6306030b241807f2185e-5c1dc77c5dd8e-34.jpg

সোয়েব সাঈদ ॥
কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনে মহাজোট প্রার্থী সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, জনতার বাঁধভাঙ্গা জোয়ারে এবার ভাসবে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের প্রতীক নৌকা। মানুষকে বিভ্রান্ত করে আর অর্থের লালসায় ফেলে ভোট আদায়ের দিন শেষ হয়ে গেছে। এবার নৌকা জয় সুনিশ্চিত। তিনি বলেন, কক্সবাজার-রামুবাসী এবারের নির্বাচনে অযোগ্য বিএনপি নেতাকে বয়কট করেছে। কারন বিএনপি নেতা কাজল এমপি থাকাকালে কক্সবাজার-রামুবাসীর উন্নয়নের জন্য কোন কথা বলেননি। ৫ বছরে বরাদ্ধ পাওয়া অর্থ এখানকার উন্নয়নের ব্যয় করেননি। তিনি সময় ব্যয় করেন ব্যবসায়িক কাজে। এমপি থাকাকালে বরাদ্ধকৃত অর্থ দিয়ে রামুর ঈদগড়ে নিজের মৎস্য খামারে যাওয়ার পথে ব্রীজ এবং খুনিয়াপালংয়ের গোয়ালিয়ায় নিজের হ্যাচারীতে যাওয়ার সড়ক পাকাকরণ করেছেন। তিনি ভয়াবহ বন্যায়ও মানুষের পাশে ছিলেন না। কোথাও একটি মক্তব্য তিনি প্রতিষ্ঠা করেননি। মানুষের উন্নয়নের চেয়ে তিনি নিজের উন্নয়নের জন্য বেশী কাজ করেছেন। এখন ভোটের সময় এসে মিথ্যা কথার ফুলঝুরি দিয়ে মানুষের মনগলানোর চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। রামু-কক্সবাজারবাসী এবার অতীতের মতো আর ভুল করবে না। মানুষ আওয়ামীলীগের উন্নয়নে সন্তুষ্ট। তাই ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে আপামর জনতা স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়ে নৌকা প্রতীককে জয়ী করবে।
সাংসদ কমল মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ও গর্জনিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকায় নৌকা প্রতীকের সমর্থনে আয়োজিত পথসভা ও গণসংযোগকালে এসব কথা বলেন।
এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল আরো বলেন, কক্সবাজার-রামুতে আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর, রেল লাইন, সমুদ্র গবেষনা ইন্সটিটিউট, মেডিকেল কলেজ, বাঁকখালী নদী ড্রেজিং, বিকেএসপি সহ অনেক বড় উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে, যা মানুষ কল্পনাও করেনি। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিলেন বলেই এ উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে কক্সবাজার-রামুর মানুষ এখন উন্নয়নের প্রতীক নৌকাকে জয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে।
সন্ধ্যায় কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের গর্জনিয়া বাজার, মৌলভী কাটা, হাইস্কুলপাড়া সহ বিভিন্নস্থানে গণসংযোগ, অফিস উদ্বোধন ও পথসভায় রামু উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য শামসুল আলম চেয়ারম্যান, কচ্ছপিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইসমাইল মো. নোমান, সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন কোম্পানী, কক্সবাজার জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হোসাইন আহমদ আনছারী, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সিকদার, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, সহ সভাপতি জাকের আহমদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও এমপি কমলের ব্যক্তিগত সহকারি আবু বক্কর ছিদ্দিক, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন সোহেল সিকদার, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক লবা কর্মকার প্রমূখ।
রাতে গর্জনিয়া ইউনিয়নের বটতলী, মাঝিরকাটা, পূর্ব জুমছড়ি ও থোয়াংগেরকাটায় আয়োজিত সমাবেশে এমপি কমল ছাড়াও বক্তব্য রাখেন, গর্জনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, গর্জনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরী, গর্জনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. ইউসুফ ও ফরিদ আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শংকর শর্মা ও আইয়ুব সিকদার, গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক বেলাল উদ্দিন শাহেদ, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক তানজিদ রায়হান, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন আহবায়ক সরওয়ার কামাল, ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের আহবায়ক আবুল কালাম, যুগ্ন আহবায়ক আনিসুর রহমান, গর্জনিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মেম্বার, আওয়ামীলীগ নেতা হাবিব উল্লাহ চৌধুরী, মো. ইয়াহিয়া চৌধুরী, আবুল কাশেম মেম্বার, আবদুল জব্বার মেম্বার, মুফিজুর রহমান মেম্বার, সাইফুদ্দিন চৌধুরী লেবু, আবু ইউসুফ, পরিতোষ শর্মা, এমরান প্রমূখ।
সমাবেশ ও গণসংযোগকালে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মহাজোট প্রার্থী সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি’র আগমনে গর্জনিয়া-কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের সর্বত্র উৎসবমুখর হয়ে উঠে। সড়কের দুপাশে দাঁড়িয়ে হাজার হাজার নারী-পুরুষ এমপি কমলকে শুভেচ্ছা জানান। অফিস উদ্বোধন ও পথসভাগুলো বিশাল জনসমাবেশে রূপ নেয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন