কক্সবাজার সদর-রামু আসন: নৌকার মনোনয়ন নিয়ে চমক দিতে পারেন নজিবুল!

Screenshot_2018-10-09-21-29-57-307_com.facebook.katana.jpg

দিসিএম

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। নজিবুল ইসলামের প্রচারণা নতুন চমক হতে পারে বলে মনে করছে অনেকেই। নজিবের প্রচারণা নিয়ে গুঞ্জনও চলছে সর্বত্র। তার ইমেজেই নতুন চমক হতে পারে বলে ধারণা নেতাকর্মীদের। ৫ অক্টোবর নতুন বাহারছড়া জামে মসজিদে নামাজ আদায়, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে তিনি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা শুরু করেন।
মসজিদ থেকে বেরিয়ে তিনি কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা একেএম মোজাম্মেল হকের কবর জিয়ারত করেন। এরপর ওই এলাকায় স্থানীয় জনগণের সাথে কথা বলেন এবং তাদের দুঃখ দুর্দশার খবর নেন। এ সময় তার সাথে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মনোনয়নপ্রত্যাশী মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম বলেন, ‘জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান আমার নেতা। যার হাত ধরে আমার পথ চলা। নৌকার মনোনয়ন পেলে মুজিব ভাইয়ের নেতৃত্বে এবং আপনাদের দোয়ায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার সদর ও রামু আসনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত।”
তিনি বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ সবকিছুই পারে। তার উদাহরণ হচ্ছে কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচন। আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ ছিল বলেন পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মুজিবুর রহমান বিপুল ভোটে পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। আশা করি, যদি কক্সবাজার সদর-রামু আসনে মনোনয়ন পায় তাহলে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে নিয়ে এই আসনটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেব। এদিকে মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম কক্সবাজার সদর-রামু আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় অনেকে অভিনন্দন ও শুভ কামনা জানিয়েছেন। অনিক পাল বলেন, নজিব ভাইয়ের মত সাংসদ সদর-রামু আসনে প্রয়োজন। তার জন্য শুভকামনা রইল।
দিপু ইউসুপ ইকবাল নামে একজন বলেন, নজিব ভাই প্রার্থী হিসাবে যোগ্য। ঐতিহ্যবাহী পরিবারে তাঁর জন্ম। তিনি শিক্ষিত, মার্জিত, উন্নত রুচি ও মূল্যবোধের অধিকারী। রাজনীতিতে অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন ব্যক্তিত্ব। উদার মনের এই মানুষটি অন্তরে লালন করেন অজ¯্র মানবিক গুণ। তার বহিঃপ্রকাশ ঘটে সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক নানাবিধ কর্মে ও কৌশলে। সংস্কৃতির বিবিধ শাখায় তার ভূমিকা রয়েছে। কুসংস্কারমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক, আধুনিকমনস্ক ও সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তনে দৃঢ়প্রত্যয়ী আপোসহীন এই যোদ্ধা যোগ্যতার বিচারে নিঃসন্দেহে বিবেচিত হবেন। মনোনয়ন পেলে বিজয় তাঁর অনিবার্য।

আপনার মন্তব্য লিখুন